মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

এক নজরে

ব্যানবেইস সম্পর্কেঃ

 

বাংলাদেশ শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস) দেশের শিক্ষা ব্যাবস্থাপনায় শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান সংগ্রহ, সংরক্ষণ, বিতরণ ও প্রচারের একমাত্র সরকারী সংস্থা । ১৯৭৬-৭৭ অর্থ বছরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংযুক্ত দপ্তর হিসাবে সংস্থাটি কাজ শুরু করে । সংস্থাটি শিক্ষা ক্ষেত্র ধারাবাহিক উন্নয়নের সাথে সম্পৃক্ত হয়ে শিক্ষাতথ্য বিনির্মাণ ও সরবরাহ করে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহের কাছে সমাদৃত হয়েছে । শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান কার্যক্রম ছাড়াও বর্তমান সরকারের ভিশনঃ ২০২১ ও এসডিজি বাস্তবায়নে শিক্ষাক্ষেত্রে আইসিটি প্রশিক্ষণ ও আইসিটি শিক্ষা প্রসারে ব্যানবেইস গুরুত্ত্বপূর্ন ভূমিকা রাখছে । 

 

উপজেলা আইসিটি ট্রেনিং এন্ড রিসোর্স সেন্টার ফর এডুকেশন (UITRCE) সম্পর্কেঃ

 

কোরিয়া সরকারের Economic Development and Cooperation Fund (EDCF) এর আওতায় Exim Bank এর আর্থিক সহযোগিতায় শিক্ষকদের আইসিটি প্রশিক্ষণ ও তৃণমূল পর্যায়ে ই-সেবা প্রদানসহ দেশের শিক্ষা ক্ষেত্রে আইসিটি শিক্ষা প্রসারের লক্ষ্যে ১২৫টি উপজেলাতে UITRCE নির্মাণ করা হয়েছে । বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৬ সালের, ২ মার্চ একযোগে এ সেন্টারগুলো শুভ উদ্ভোধন করেন । তার পর থেকে এ সেন্টারগুলার কার্যক্রম পুরোদমে চলছে। এ সেন্টারগুলোর মাধ্যমে জুন ২০১৭ এর মধ্যে প্রায় ১ লক্ষ শিক্ষক আইসিটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহন করেছেন । দেশের সবগুলো উপজেলাতে সেন্টার স্থাপনের পরিকল্পনার আওতায় বর্তমানে ২য় পর্যায়ে ১৬০টি উপজেলাতে UITRCE নির্মাণের কার্যক্রম চলছে । ৩য় পর্যায়ে দেশের বাকি সবগুলো উপজেলাতে UITRCE স্থাপনের কাজ সম্পন্ন হবে ।

UITRCE সেন্টারগুলোতে একজন সহকারী প্রোগ্রামার, একজন কম্পিউটার অপারেটর, একজন ল্যাব এসিস্ট্যান্ট, একজন নিরাপত্তা প্রহরীর ও একজন পরিচ্ছন্নতা কর্মীর পদ সৃজন করে জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে UITRCE এর সবগুলা পদ রাজস্ব খাত ভুক্ত। এই সেন্টারটি বর্তমানে উপজেলা পর্যায়ের একটি অনন্য-সাধারণ স্থাপনা, ৪ তলা ভিত্তি সহ ২ তলা ভবন । এটি উপজেলা পর্যায়ে আইসিটি ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তোলা ও আইসিটি শিক্ষার ক্ষেত্রে গুনগত মান বৃদ্ধিতে খুবই গুরুত্ত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করে চলেছে ।

শিক্ষা ও আইসিটি সেক্টরে গুরুত্ত্বপূর্ন ভুমিকা পালনের মাধ্যমে এই “উপজেলা আইসিটি ট্রেনিং এন্ড রিসোর্স সেন্টার ফর এডুকেশন (UITRCE)” গুলি সরকারের ভিশন – ২০২১, সাসটেইনএবল ডেভেলপমেন্ট গোলস – ২০৩০ (SDGs) ও রপকল্প – ২০৪১ বাস্তবায়নে তৃণমূল পর্যায়ে গুরুত্ত্বপূর্ন কাজ করছে। সর্বোপরি সোনার বাংলা গড়ার ক্ষেত্রে যথেষ্ট অবদান রাখতে পারে এই UITRCE সেন্টারগুলি ।

 

উপজেলা আইসিটি ট্রেনিং এন্ড রিসোর্স সেন্টার ফর এডুকেশন (UITRCE) এর বর্তমান কার্যক্রমঃ

 

  • দেশের ১২৫ টি উপজেলায় ইউআইটিআরসিই স্থাপন করা হয়েছে প্রথম পর্যায়ে । দেশের সবগুলো উপজেলাতে সেন্টার স্থাপনের পরিকল্পনার আওতায় দ্বিতীয় পর্যায়ে আরো ১৬০ টি উপজেলাতে সেন্টার স্থাপনের কাজ চলমান আছে ।
  • প্রথম পর্যায়ের ১২৫ টি সেন্টার বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ২ মার্চ, ২০১৬ একযোগে উদ্ভোধন করেন। এবং সেদিন থেকেই এই সেন্টারগুলোর কার্যক্রম চলমান আছে।
  • ব্যনবেইস এর বিভিন্ন বার্ষিক জরিপ কাজ সু-সম্পন্ন করার লক্ষ্যে শিক্ষকদের প্রশিক্ষন কালীন ধারণা প্রদান করা হচ্ছে । অনলাইনে জরিপ কাজ এর তথ্য প্রদান এর জন্য কারিগরী সহায়তা ও তথ্য সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে ।
  • দেশের ৯ টি শিক্ষা অঞ্চলের ৯ টি বাছাইকৃত উপজেলাতে Civil Registration & Vital Statistics (CRVS) এর পাইলটিং এর কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে আছে, যেটা খুবই গুরুত্ত্বপূর্ন একটা প্রকল্প । এই প্রকল্পের ফোকাল পয়েন্ট হিসাবে কাজ করছে ব্যানবেইস ।
  • ব্যনবেইস এর বিভিন্ন সেন্ট্রাল ড্যেটাবেইজ কে ফিল্ড লেভেল থেকে আপ-টু-ডেইট রাখার কাজে ভূমিকা পালন করছে ইউআইটিআরসিই সেন্টারগুলো ।
  • উপজেলা পর্যায়ে তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষন ও সেমিনার আয়োজনে বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী সংস্থাকে বিভিন্ন সময়ে লজিস্টিক ও ইনফ্রাস্ট্রাকচার সুবিধা প্রদান করে আসছে ইউআইটিআরসিই সেন্টারগুলো ।
  • প্রথম পর্যায়ে প্রকল্পের আওতায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়, ব্যানবেইস ও সহযোগী সংস্থার ৪৫ জন কর্মকর্তা  কোরিয়াতে LS Cable & System Ltd. কর্তৃক ৫ টি ব্যাচে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছেন ।
  • প্রথম পর্যায়ের ১২৫ টি সেন্টার এর অধিকাংশতেই কর্মচারীদের নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে । ৪৪ টি সেন্টার এর অফিস প্রধান হিসাবে ৪৪ জন সহকারী প্রোগ্রামার এর নিয়োগ ও পদায়ন ইতিমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে ।
  • সেন্টারের ট্রেইনি শিক্ষকদের রেজিষ্ট্রেশন, মাস্টার ট্রেইনার (ToT) দের মূল্যয়ন ও প্রশিক্ষণ মনিটরিং এর জন্য অনলাইন ভিত্তিক সফটওয়্যার করা হচ্ছে।

 

উপজেলা আইসিটি ট্রেনিং এন্ড রিসোর্স সেন্টার ফর এডুকেশন (UITRCE) এর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনাঃ

 

১) দেশের সব কয়টি উপজেলাতে ইউআইটিআরসিই স্থাপন এর কাজ সু-সম্পন্ন করা ।

২) দেশের সকল শিক্ষককে আইসিটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করে আধুনিক পদ্ধতিতে পাঠদানের জন্য দক্ষ করে গড়ে তোলা ।

৩) উপজেলা পর্যায়ে শিক্ষার মান উন্নয়নে ভূমিকা রাখার মাধ্যমে জাতীয় অগ্রগতিতে গুরুত্ত্বপূর্ন অবদান রাখা ।

৪) সকল স্কুল এবং কলেজগুলোতে মাল্টিমিডিয়িা কনন্টেন্ট ও ক্লাস রুম এর সর্বোত্তম ব্যাবহার নিশ্চিত করতে ভূমিকা রাখা ।

৫) উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের আইসিটি বিষয়ক প্রশিক্ষণ প্রদান করে তাদের কারিগরি দক্ষতা উন্নয়নে ভূমিকা রাখা ।

৬) উপজলো ড্যেটা ওয়ারহাউজ তৈরী করা ও ব্যানবেইস এর বিভিন্ন সেন্ট্রাল ডেটাবেইস এর তথ্য হালনাগাদ রাখা ।

৭) সংশ্লষ্টি উপজলোর সাধারণ মানুষকে আইসিটি এর প্রয়োগ ও ব্যাবহার সম্পর্কে উদ্ভুদ্ধ করে তোলা এবং তাদের প্রশিক্ষণ এর মাধ্যমে আইসিটিতে দক্ষ করে তোলা । 

৮) স্কুল-কলেজের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও সাধারন জনগনের জন্য সাইবার সেন্টার চালু রাখা ও এর সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করা ।

৯) নাগরিকদের Access to Information (A2I) সেবা ও স্বল্প সময়ে তথ্য প্রাপ্তি সেবা নিশ্চিত করা ।

১০) আইসিটি শিক্ষা ক্ষেত্রে ইনোভেশন ও জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল এর প্রায়োগিক দিক নিশ্চিত করা ।

১১) সরকারের 7th 5YP, ভিশন-২০২১ [ডিজিটাল বাংলাদেশ], SDG Goals, রুপকল্প – ২০৪১, সর্বোপরি ২০৭১ এর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে শিক্ষা, আইসিটি ও অন্যান্য ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখা । 

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter